সরকারকে অবশ্যই পার্বত্য নেত্রীদের অপহরণ বিষয়টি তদন্ত করতে হবে : নিউ এজ সম্পাদকীয়

0
3

ডেস্ক রিপোট॥ রাষ্ট্রের বৃহত্তর স্বার্থে সরকারকে অবশ্যই হিল উইমেন্স ফেডারেশনের দুই নেত্রীর অপহরণের বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে হাতে নিতে হবে। তদন্ত করে জনগণের কাছে বিশ্বাসযোগ্যভাবে পরিস্কার করতে হবে যে, নিরাপত্তা বাহিনী কোনভাবেই এর সাথে জড়িত নয়।

আজ মঙ্গলবার ইংরেজী দৈনিক নিউ এজ-এ ‘Government must investigate CHT leader abduction case’ শিরোনামে প্রকাশিত এক সম্পাদকীয়তে উপরোক্ত মন্তব্য করা হয়েছে। এতে আরো বলা হয়েছে, যদি অপহরণের কারণ হয় তাদের রাজনৈতিক কর্মকান্ড এবং প্রতিবাদ-বিক্ষোভে তাদের অংশগ্রহণ, তাহলে সরকারকে অবশ্যই অপহরক গ্রুপটিকে বিচারের আওতায় নিয়ে আসতে হবে।

মন্টি ও দয়াসোনা চাকমার গতকালের সংবাদ সম্মেলনে দেয়া বক্তব্যের উদ্ধৃতি দিয়ে সম্পাদকীয়তে বলা হয়, ‘অভিযোগ রয়েছে যে, নিরাপত্তা বাহিনীর সাথে নব্য মুখোশ বাহিনীর যোগাযোগ রয়েছে এবং অপহরণের সাথে নব্য মুখোশ বাহিনী এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি থেকে বেরিয়ে যাওয়া একটি অংশের অনুসারীরা জড়িত। অভিযোগগুলো সম্পূর্ণ সত্য নাও হতে পারে, তবে যেহেতু অভিযোগগুলো নিরাপত্তা বাহিনী এবং পাহাড়ের অন্য একটি রাজনৈতিক গ্রুপের বিরুদ্ধে, তাই সরকারের দায়িত্ব হলো বিষয়টি বিশ্বাসযোগ্যতার সাথে তদন্ত করা এবং জনসমক্ষে উক্ত তদন্তের ফল প্রকাশ করা, যাতে এ নিয়ে আর কোন অনুমান নির্ভর কথাবার্তা না হয়।’

সেনাবাহিনীর ইন্টার-সার্ভিসেস পাবলিক রিলেসন্স কর্তৃক অপহরণের সাথে আর্মির জড়িত থাকার অভিযোগ অস্বীকার করার খবর উল্লেখ করে উক্ত সম্পাদকীয়তে আরো বলা হয়েছে, ‘দুই নারী নেত্রী বলেছেন তাদেরকে বিভিন্ন ক্যাম্প ও চেক পয়েন্ট অতিক্রম করে এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় নিয়ে যাওয়া হয়েছিল, অথচ কোথাও তাদেরকে নিরাপত্তা তল্লাশীর মুখোমুখি হতে হয়নি। তাদের এই বর্ণনা জনমনে এই বিশ্বাস জোগাবে যে, অপহরণের ঘটনার সাথে নিরাপত্তা বাহিনীর যোগাযোগ থাকতে পারে।’

‘অধিকন্তু দুই নেত্রী বলেছেন তাদের রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড এবং দুই মারমা বোনকে ধর্ষণ ও হেফাজতে কলেজ ছাত্র রমেল চাকমার খুনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে তারা যে ভূমিকা রেখেছিলেন তার কারণে তাদেরকে অপহরণ করা হতে পারে।’

সম্পাদকীয়তে দুই নেত্রীকে উদ্ধৃত করে বলা হয় তিনটি শর্তে তাদেরকে নব্য মুখোশ বাহিনী ছেড়ে দিয়েছে এবং উক্ত শর্ত পালন না করার জন্য অপহরণকারীরা তাদের পরিবারের সদস্যদের হুমকি দিচ্ছে। ‘এই পরিস্থিতিতে সরকারের উচিত বিষয়টির প্রতি নজর দেয়া এবং প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা।’

উক্ত দুই নেত্রী মন্টি এবং দয়াসোনা চাকমার দেশের অন্য যে কোন নাগরিকের মতো তাদের রাজনৈতিক বিশ্বাস লালন করা এবং নিজ বাড়িতে বসবাসের অধিকার রয়েছে বলে সম্পাদকীয়তে মন্তব্য করা হয়েছে।
———————
সিএইচটি নিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.