সাজেকে পার্বত্য চট্টগ্রাম নারী সংঘের নেত্রীর উপর সন্ত্রাসী হামলার নিন্দা

0
0

পার্বত্য চট্টগ্রাম নারী সংঘের সভাপতি সোনালী চাকমা ও হিল উইমেন্স ফেডারেশনের সভাপতি নিরূপা চাকমা আজ সোমবার(২৫ জুলাই) এক যুক্ত বিবৃতিতে রাঙামাটি জেলার বাঘাইছড়ি থানাধীন সাজেকে নারী সংঘের নেত্রী নিরূপা চাকমার উপর সরকারী গোয়েন্দাদের লেলিয়ে দেয়া দুর্বৃত্তদের সন্ত্রাসী হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন এবং অবিলম্বে হামলাকারীদের গ্রেফতার-পূর্বক শাস্তির দাবি করেছেন।

Bibrityঘটনার বর্ণনা দিয়ে নেতৃবৃন্দ বলেন, আজ দুপুর ১২টার দিকে বাঘাইহাট গুচ্ছগ্রাম থেকে ৮/১০ জনের একদল দুর্বৃত্ত চাঁদের গাড়িতে করে উজো বাজারে গিয়ে নারী নেত্রী নিরূপা চাকমার উপর লাঠিসোটা ও লোহার রড দিয়ে আচমকা হামলা চালায়। সন্ত্রাসীদের এলোপাথারী আঘাতে তার মাথা ফেটে গেলে তিনি অজ্ঞান হয়ে পড়েন। তাকে মুমুর্ষু অবস্থায় চিকিৎসার জন্য খাগড়াছড়ি নেয়া হয়েছে।

নেতৃদ্বয় অভিযোগ করে বলেন, সরকারী গোয়েন্দাদের আশ্রয়ে থেকে দুর্বৃত্তরা দীর্ঘদিন ধরে মারিশ্যার করেঙ্গাতলীসহ এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে। তারা দিনে দুপুরে চাঁদাবাজি, অপহরণ, লোকজনকে মারধর, বাড়িঘরে হামলা, হুমকী, সশস্ত্র মহড়া ইত্যাদি বিভিন্ন সন্ত্রাসী ও অপরাধমূলক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।

এলাকায় যাতে জনগণের ন্যায়সঙ্গত অধিকার আদায়ের জন্য আন্দোলন গড়ে উঠতে না পারে সে লক্ষ্যে সরকারী গোয়েন্দারা এইসব দুর্বৃত্তদের দিয়ে এসব করাচ্ছে বলে তারা মন্তব্য করেন।

তারা আরো বলেন, নিরূপা চাকমা সাজেক নারী সমাজ ও পার্বত্য চট্টগ্রাম নারী সংঘের কেন্দ্রীয় নেতা। তিনি বিগত জরুরী অবস্থার সময় ও তারও পরে সাজেকে সেনা সেটলারদের ভূমি বেদখলের বিরুদ্ধে সংগঠিত গণআন্দোলনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন। এ কারণে সেনা গোয়েন্দারা প্রতিশোধ পরায়ণ হয়ে তাদের পালিত দুর্বৃত্ত ও সন্ত্রাসীদের মাধ্যমে নিরূপাকে টার্গেট করেছে।

দুই নেত্রী বলেন, দুর্বৃত্তদের হাত করে সেনা গোয়েন্দাদের পাহাড়িদের মধ্যে আভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্ব লাগিয়ে দিয়ে ফায়দা লোটার ষড়যন্ত্র সফল হবে না। সাজেক ও বাঘাইছড়িবাসী ঐক্যবদ্ধ হয়ে সন্ত্রাসী-দুর্বৃত্ত, সেনা গোয়েন্দাদের হাতের পুতুল, প্রতিক্রিয়াশীল, সুবিধাবাদী ও ধান্দাবাজদের প্রতিহত করবে, যেভাবে অতীতে সেনা-মদদপুষ্ঠ মুখোশ বাহিনীকে সমূলে ধ্বংস করেছে।

সোনালী চাকমা ও নিরূপা চাকমা সন্ত্রাসী-দুর্বৃত্তদের বিরুদ্ধে গ্রামে গ্রামে ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘জনগণের ঐক্যবদ্ধ শক্তির কাছে সকল ধরনের অপশক্তি পরাজিত হতে বাধ্য। সাজেকবাসী নিকট অতীতে তার জাজ্জ্বল্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।’
—————-
সিএইচটি নিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.