সাজেকে পাহাড়িদের বাগান-বাগিচা ধ্বংস করে সেনাবাহিনীর রাস্তা ও ক্যাম্প নির্মাণের অভিযোগ

0
408
ক্যাম্প নির্মাণের জন্য বাগান-বাগিচা ধ্বংস করে কাটা হচ্ছে মাটি

সাাজেক ।। রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলার সাজেক ইউনিয়নে পাহাড়িদের জুমের ফসল ও ফলজ-বনজ বাগান-বাগিচা ধ্বংস করে দিয়ে সেনাবাহিনী রাস্তা ও ক্যাম্প তৈরি করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

জানা গেছে, সাজেকের রুইলুই থেকে কমলাক হয়ে সাজেক নদীর পার ঘেষে সেনাবাহিনীর ২০ ইসিবি একটি রাস্তা নির্মাণের কাজ করছে। উক্ত রাস্তাটি প্রস্থ ৪০ ফুট করা হবে বলে জানা গেছে। মুলত পাহাড়িদের ভোগদখলীয় জায়গার উপর দিয়েই এই রাস্তাটি নির্মাণ করা হচ্ছে। ফলে এতে জুমচাষী পাহাড়িরা ক্ষতির শিকার হচ্ছেন। তাদের বনজ-ফলজ গাছের বাগান ধ্বংস করে দেওয়া হচ্ছে এবং রাস্তার ধারে থাকা ঘরবাড়ি ভেঙে দেওয়ারও অভিযোগ পাওয়া গেছে।

স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেছেন, তারা ক্ষতিপূরণের জন্য আবেদন করতে গেলে সেনাবাহিনীর তরফ থেকে তাদেরকে বলা হয়েছে, “এগুলো সরকারি জায়গা, এই জায়গাগুলোতে তোমাদের কোন অধিকার নেই, এসব জায়গা তোমরা দাবি করতে পার না। প্রশাসন চাইলে যে কোন সময় তোমাদের তাড়িয়ে দিতে পারে। সরকার তোমাদের ভালোবাসে বলেই এখনো তেমন কিছু করছে না”।

উক্ত রাস্তার নির্মাণের কারণে কমলাক পাড়া, উদয়পুর, ছয়নাল ছড়া, দাড়ি ছড়াসহ বিভিন্ন গ্রামে অনেকে ক্ষতিগ্রস্ত হলেও কিছুই বলতে পারছেন না।

ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে কমলাক পাড়ার যাদের নাম পাওয়া গেছে তারা হলেন ১. মহনলাম চাকমা (৪৫) বর্তমান মেম্বার পিতা: প্রতি রঞ্জন চাকমা, ২.সজিব চাকমা (২৮) পিতা: প্রতি রঞ্জন চাকমা, ৩.কুসুম কান্তি চাকমা(৪২), পিতা:কান্তিময় চাকমা, ৪.ত্রিশংগু চাকমা (৪৭) পিতা: গুড়া চন্দ্র চাকমা, ৫. আনন্দ সাগর চাকমা(৪৫) পিতা: রাঙাকোলা চাকমা, ৬.গুবজয় চাকমা (৫০)পিতা: রাঙাকোলা চাকমা, ৭. রিপন জ্যোতি চাকমা (৩০) পিতা: ভারত বিজয় চাকমা, ৮. সন্তুস চাকমা(৪২)পিতা :দেবেন জয় চাকমা, ৯.দীর্ঘ চরণ চাকমা(৫৫) পিতা:জ্ঞানচন্দ্র চাকমা, ১০. ডালিম কুমার চাকমা(৩৩)পিতা: প্রতিরঞ্জন চাকমা, ১১.চমল বিকাশ চাকমা (৩২)পিতা: শান্তি কুমার চাকমা, ১২.ধনময় চাকমা (৩৩)পিতা:নয়ারাম চাকমা, ১৩. রবিকুমার চাকমা(৩০) পিতা কালামরত চাকমা, ১৪. টন্টুমনি চাকমা(৩০) পিতা : প্রতি রজ্ঞন চাকমা, ১৫.বাবু চাকমা (৪৫) পিতা: আদর বিহারী চাকমা, ১৬.প্রতিময়(গুয়াত্তে) চাকমা(৪৫)পিতা:পদ্মসেন চাকমা, ১৭.ধনকুমার চাকমা(৪০)পিতা: ধর্মধন চাকমা।

ক্যাম্প নির্মাণস্থলে কর্মরত দু’জন সেনা সদস্যকে দেখা যাচ্ছে

অপরদিকে, উদয়পুর ও কমলাক সীমানার মধ্যে নতুন একটি সেনা ক্যাম্প তৈরির জন্য জুমচাষীদের বাগান-বাগিচা ধ্বংস করে ট্রাক্টরের সাহায্যে মাটি কাটার কাজ চলছে। সরকার পরিবেশ রক্ষার জন্য বড় বড় কথা বললেও সেখানে অবাধে কাটা হচ্ছে পাহাড় ও বনজ-ফলজ বাগানের গাছপালা। এতে স্থানীয় জুমচাষী পাহাড়িরা ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। শুধু তাই নয়, ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে পরিবেশেরও। কিন্তু এক্ষেত্রে সরকারের কোন ভ্রুক্ষেপ নেই।

বি:দ্র: এ রিপোর্টের তথ্যগুলো এখনো অসম্পুর্ণ। বিস্তারিত তথ্য জানা সম্ভব হলে পরে এ নিয়ে আরো রিপোর্ট প্রকাশ করার চেষ্টা করা হবে।

 


সিএইচটি নিউজে প্রকাশিত প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ,ভিডিও, কনটেন্ট ব্যবহার করতে হলে কপিরাইট আইন অনুসরণ করে ব্যবহার করুন।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.