সাজেক থেকে পণ্য বোঝাই গাড়ি যেতে দেয়া হচ্ছে না

0
0

sajekসাজেক (রাঙামাটি): আজ শুক্রবার ছিল সাজেকের মাচালং বাজারের হাট বার। বিভিন্ন লোকজনের সাথে কথা বলে জানা যায়, বাজারে যথারীতি লোক সমাগম এবং কেনাবেচা হলেও ব্যবসায়ীরা বাজার থেকে কেনা পাহাড়িদের উৎপন্ন পণ্য দীঘিনালা, খাগড়াছড়ি ও চট্টগ্রামের দিকে নিয়ে যেতে পারছেন না।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যবসায়ী জানান, গতকাল (বৃহস্পতিবার) গাড়িতে করে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের বোঝাই মাচালঙে নেয়া গেছে। তবে নেয়ার সময় রাস্তায় বাঘাইহাট জোনে (৬ নং পোস্ট) এন্ট্রি করতে হয়েছে।

অপর এক ব্যবসায়ী জানান, তিনি সিএনজি করে কিছু মাল তার দোকানের জন্য নিয়ে যাচ্ছিলেন। ৬ নং পোস্টে তার গাড়িকে আটকিয়ে কর্মরত সেনাটি তাকে জানান যে, যারা মালামাল নিতে পারবে তাদের তালিকায় তার নাম নেই। অবশ্য পরে তাকে মাল নিয়ে যেতে দেয়া হয়।

মাচালং বাজারের এক দোকানীর ভাষ্য অনুযায়ী, বাজারের দোকানগুলোতে জিনিসপত্রের সংকট নেই। তবে সেগুলো ক্রয় করার ক্ষমতা পাহাড়িদের নেই। কারণ তারা তাদের উৎপাদিত পণ্য বিক্রি করতে না পারায় তাদের হাতে নগদ টাকার অভাব রয়েছে।

অপরদিকে পাহাড়িরা আদা, হলুদ, তিল ইত্যাদি জুমের উৎপাদিত মাল বিক্রি করতে পারলেও ব্যবসায়ীরা সেগুলো নিয়ে যেতে পারছে না।

একজন ব্যবসায়ী জানান, ‘আমরা মালগুলো কিনেছি সত্য, কিন্তু নিতে পারছি না। কারণ গাড়িওয়ালারা আমাদের মালামালগুলো গাড়িতে তুলতে চায় না। তারা বলেছে আর্মিদের নাকি বাধা আছে।’

ফলে নিরুপায় হয়ে তাদেরকে মালগুলো মাচালং বাজারে স্টক করে রাখতে হয়েছে। পরে কখন নিতে পারবে বা আদৌ নিতে দেয়া হবে কী না তা এখনো অনিশ্চিত বলে তিনি জানান। এভাবে চললে লোকসান অনিবার্য বলে তিনি জানান।

আর মাল নিতে না পারলে তার প্রভাব পরবর্তী বাজার বারে পড়তে পারে বলে তিনি আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেন গত বাজার বারে কলা কেনার পরও সাজেক থেকে অন্যত্র নিতে দেয়া হয়নি। এ কারণে আজ বাজারে কোন কেউ কলার কাঁদি বিক্রি করতে নিয়ে আসেনি।

তাই কেনা আদা হলুদও নিয়ে যেতে দেয়া না হলে আগামী বাজার বারে পাহাড়িরা সে সব পণ্য বিক্রির জন্য নিয়ে আসবে কিনা সে ব্যাপারে সন্দেহ দেখা দিয়েছে।

আর তারা তাদের উৎপাদিত পণ্য বিক্রি করতে না পারলে বাঙালি ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র যেমন চাল, ডাল, তেল, নুন ইত্যাদি কিনতে পারবে না। ফলে সংকট থেকেই যাবে।

অপরদিকে এই অস্বাভাবিক অবস্থার কারণে পাহাড়িরা তাদের উৎপাদিত পণ্যের ন্যায্য মূল্য পাবে কিনা সে ব্যাপারেও সন্দেহ রয়েছে।

আরো পড়ুন:

<<সাজেকের জনগণকে ভাতে মারার সেনা ষড়যন্ত্র

——————

সিএইচটি নিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.