সিএইচটি কমিশনের বাবুছড়া ও তদেকমারা কিজিং পরিদর্শন

0
4

সিএইচটিনিউজ.কম

বাবুছড়ার যত্নমোহন কার্বারী পাড়ায় বিজিবি কর্তৃক ভেঙে দেয়া পাহাড়িদের ঘরবাড়ি পরিদর্শন করছে সিএইচটি কমিশন
বাবুছড়ার যত্নমোহন কার্বারী পাড়ায় বিজিবি কর্তৃক ভেঙে দেয়া পাহাড়িদের ঘরবাড়ি পরিদর্শন করছে সিএইচটি কমিশন

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: পার্বত্য চট্টগ্রাম সফররত সিএইচটি কমিশনের একটি প্রতিনিধি দল গতকাল বৃহস্পতিবার বাবুছড়ায় বিজিবি ব্যাটালিয়ন সদর দপ্তর স্থাপনে বিরোধপূর্ণ স্থান ও বিজিবি কর্তৃক উচ্ছেদ হওয়া পরিবারগুলোর ঘরবাড়ি পরিদর্শন করেছেন। এছাড়া প্রতিনিধি দলটি বাঘাইছড়ির তদেকমারা কিজিঙে ভাবনা কুটির নির্মাণাধীন এলাকাও পরিদর্শন করেছেন।

প্রতিনিধি দলে ছিলেন কমিশনের কো-চেয়ার সুলতানা কামাল, সদস্য স্বপন আদনান, খুশী কবির, ড. ইফতেখারুজ্জামান ও হানা শামস আহমেদ। এছাড়া খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা চেয়ারম্যান চঞ্চুমনি চাকমা ও  ইলিরা দেওয়ান প্রতিনিধি দলের সাথে ছিলেন।

সিএইচটি কমিশনের প্রতিনিধিবৃন্দ বাবুছড়ায় বিজিবি কর্তৃৃক উচ্ছেদ হওয়া পরিবারগুলোর সাথে কথাবার্তা বলছেন
সিএইচটি কমিশনের প্রতিনিধিবৃন্দ বাবুছড়ায় বিজিবি কর্তৃৃক উচ্ছেদ হওয়া পরিবারগুলোর সাথে কথাবার্তা বলছেন

এর আগে কমিশনের নেতৃবৃন্দ বাবুছড়ায় বিজিবি কর্তৃক উ্চ্ছেদ হয়ে বাবুছড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে আশ্রিত ২১টি পাহাড়ি পরিবারের সাথে সাক্ষাত করে কথাবার্তা বলেন। এ সময় বিদ্যালয়ে আশ্রয় নেওয়া মৃণাল কান্তি চাকমা, বিজিবির হামলায় আহত গোপা চাকমা ও রিপন চাকমা ঘটনার বিস্তারিত বিবরণ তুলে ধরেন।

তারা কমিশনের নেতৃবৃন্দকে জানান, গত ১০ জুন স্থানীয় নারীরা কলাগাছ লাগাতে গেলে বিজিবি ও পুলিশ সদস্যরা তাদেরকে লাঠিসোটা, লোহার রড, বন্দুকের বাট দিয়ে মারধর করে আহত করেছে এবং নিজ বসতভিটা থেকে উচ্ছেদ করে দিয়েছে। বর্তমানে তারা ভিটেবাড়ি হারা হয়ে মানবেতর জীবন-যাপন করছেন। এ সময় তারা কমিশনের নেতৃবৃন্দের কাছে একটি স্মারকলিপি পেশ করেন।

পরে কমিশনের নেতৃবৃন্দ বিজিবি ব্যাটেলিয়ন সদর দপ্তর স্থাপন এলাকা ও উচ্ছেদকৃত পরিবারগুলোর ঘরবাড়ি পরিদনার্শন করেন এবং বিজিবি কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলেন।

তদেগমারা কিজিং পরিদর্শনে সিএইচটি কমিশনের প্রতিনিধি দল
তদেগমারা কিজিং পরিদর্শনে সিএইচটি কমিশনের প্রতিনিধি দল

বাবুছড়া পরিদর্শন শেষে কমিশনের প্রতিনিধি দলটি বাঘাইছড়ির তদেকমারা কিজিংয়ে যেখানে বৌদ্ধ ভাবনা কুটির নির্মাণে সেনা-প্রশাসন বাধা দিয়ে অনির্দষ্টকালের ১৪৪ ধারা জারি রেখেছে ওই এলাকা পরিদর্শন করেন। পরিদর্শনকালে কয়েক শ’ পাহাড়ি নারী-পুরুষ ‘ধর্মীয় অনুভূতির উপর আঘাত বন্ধ কর’, ‘সেনাবাহিনী কতৃক কুটির নির্মাণে বাধা মানি না’ ‘আমরা স্বাধীনভাবে ধর্ম পালন করতেTodekmarakijing চাই’ ইত্যাদি দাবি সম্বলিত প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন করেন। এ সময় এলাকাাবাসীর পক্ষ থেকে শিখা চাকমা, তাপসী চাকমা ননা চাকমা ও শশাঙ্ক চাকমা কমিশনের নেতৃবৃন্দের সাথে কথা বলেন। তারা সেনা-প্রশাসন কর্তৃক বুদ্ধমূর্তি স্থাপন ও ভাবনা কুটির নির্মাণের বাধাদনের বিষয়টি কমিশনের নেতৃবৃন্দকে অবহিত করেন। পরে তদেকমারা কিজিং উপাসক-উপাসিকা পরিষদের পক্ষ থেকে কমিশনের বরাবরে একটি স্মারকলিপি দেওয়া হয়।
———

 

 

সিএইচটিনিউজ.কম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.