সাবেক্ষ্যং ইউপি চেয়ারম্যান সুশীল জীবনকে হুমকি

হয় ৫ লক্ষ টাকা দাও, না হয় মৃত্যুর জন্য তৈরী থাকো : বর্মা

0
0

নান্যাচর : নান্যাচর উপজেলার ১ নং সাবেক্ষ্যং ইউনিয়ন পরিষদেরি নির্বাচিত চেয়ারম্যান সুশীল জীবন চাকমার টিএন্ডটিস্থ বাড়ি ঘেরাও করেছে সেনা-সৃষ্ট জারগো দল তথা নব্য মুখোশ বাহিনীর সন্ত্রাসীরা।

আজ বুধবার (২৯ নভেম্বর) ভোর সাড়ে ৫টার দিকে নব্য মুখোশ বাহিনীর(স্থানীয় ভাষায় জারগো দল) একদল সশস্ত্র সদস্য তাঁর বাড়িতে হানা দেয়। এসময় তিনি বাড়িতে ছিলেন না। সন্ত্রাসীরা ৫ লক্ষ টাকা নিয়ে সুশীল জীবনকে জারগো দলের সর্দার বর্মার সাথে দেখা করতে তাঁর স্ত্রীকে বলে যায়। অন্যথায় তাঁকে(সুশীল জীবনকে) মেরে ফেলার হুমকি দেয়।

সুশীল জীবন চাকমার স্ত্রী এ্যানি ত্রিপুরা সিএইচটিনিউজ ডটকমকে বলেন, আমার ছেলের পরীক্ষা চলছে। তাই আমরা ভোরে ঘুম থেকে উঠেছিলাম। ছেলেটা ড্রয়িং রুমে পাড়াশোনা করছিল। আমি বাড়ির কাজ করার সময় যে মুহুর্তে পানির মোটরটা চালু করতে যাচ্ছিলাম ঠিক তখন বাইরে থেকে ভাবি বলে ডাকাতে ডাকতে কয়েকজন লোক আসতে থাকে। অসময়ে অপরিচিত লোকের ডাকাডাকি শুনে আমার সন্দেহ হয়। গিয়ে দেখি  সিভিল পোষাক পরিহিত দু’জন অস্ত্রধারী ব্যক্তি। আমি তাঁদের চিনতে পারিনি।

এরা নিজেদেরকে নব্য মুখোশ বাহিনী বা জারগো দলের সর্দার তপন জ্যোতি চাকমার লোক পরিচয় দেয়। তাঁরা আমার স্বামী সুশীল জীবন চাকমা বাড়িতে আছেন কিনা জানতে চায়। সে বাড়িতে নেই বললে তাঁরা বলে- কেন বাড়িতে থাকেন না? আমাদের ভয়ে? এরপর তারা বলে, আমাদের সর্দার বর্মা’র নির্দেশ ৫ লক্ষ টাকা নিয়ে অতিসত্ত্বর চেয়ারম্যান সুশীল জীবন চাকমাকে তাঁর সাথে দেখা করতে হবে। তিনি (বর্মা) শপথ নিয়ে বলেছেন তাঁর কথামতো কাজ না করলে তাঁকে (সুশীল জীবন চাকমাকে) মেরে ফেলবেন অথবা এলাকা ছাড়া করবেন।

মিসেস এ্যানি ত্রিপুরা আরো বলেন, তাঁদের কথা শোনার পর আমি বর্মার সাথে সরাসরি যোগাযোগ করার কথা বলি। এরপর তাঁরা চলে যায়। সকালে বর্মাকে মোবাইলে ফোন দিই। সৌজন্যতা জানিয়ে আমার পরিচয় দিলে তিনি কোন কথা না বলে সাথে সাথে ফোন কলটি কেটে দেন। এরপর অনেকবার ফোন দেয়া হলেও তিনি আর রিসিভ করেন নি।
————-
সিএইচটি নিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.