১২১ বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গের যৌথ বিবৃতি : মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধের নামে রাষ্ট্রীয় হত্যাকাণ্ড বন্ধের দাবি

0
0

ঢাকা : মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধের নামে রাষ্ট্রীয় হত্যাকাণ্ড বন্ধের দাবি জানিয়ে দেশের রাজনীতিবিদ, শিক্ষাবিদ, লেখক, আইনজীবী, সংস্কৃতিকর্মীসহ ১২১ জন বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ এক যৌথ বিবৃতি প্রদান করেছেন।

বিবৃতিতে উদ্বেগ প্রকাশ করে বলা হয়, “তথাকথিত এই ‘মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধে’ মাদক ব্যবসার মূল হোতা এবং রাজনৈতিক ও বিভিন্ন বাহিনীর দুর্নীতিপরায়ণ পৃষ্ঠপোষকদের বিরুদ্ধে কোনো আইনি ও বিচারিক পদক্ষেপ না নিয়ে, নির্বিচারে ও প্রমাণহীনভাবে নিম্নস্তরের তথাকথিত অপরাধীদের খুন করে দেশবাসীকে প্রকৃত ঘটনা সম্পর্কে ধোঁকা দেয়া হচ্ছে। বিনাবিচারে এই হত্যাযজ্ঞ থেকে এমনকি নারী ‘অপরাধী’ও বাদ যায়নি। একাধিক ঘটনায় পুলিশ কর্তৃক অর্থের বিনিময়ে ‘ভুল মানুষ’কে খুন করা, হত্যার ভয় দেখিয়ে গ্রেপ্তারকৃত ব্যক্তি বা তার পরিবার-পরিজনের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের উৎকোচ গ্রহণের সংবাদও পত্রপত্রিকায় প্রকাশিত হওয়ার পরও এসব ঘটনার কোনো তদন্ত ও দায়ী ব্যক্তিদের বিষয়ে ব্যবস্থা না নেয়ায় দেশের সকল মানুষের সাথে আমরাও উদ্বিগ্ন।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, “আসন্ন নির্বাচনকে সামনে রেখে সরকারের লাগামহীন দুঃশাসন ও লুণ্ঠনের অপরাধকে আড়াল করতে এবং সমাজে ত্রাস সঞ্চারের জন্য বিনাবিচারে মানুষ খুন করার এই অভিযান পরিচালিত হচ্ছে। এই ‘অভিযানের’ পন্থা ও উদ্দেশ্য সম্পূর্ণভাবে দেশের ও আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত সকল আইন ও বিচারব্যবস্থার পরিপন্থী। এতে অনতিবিলম্বে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে ঠাণ্ডা মাথায় এভাবে মানুষ খুন বন্ধ করার জোর দাবি জানানো হয়।

বিবৃতিতে মাদক দমনের নামে নির্বিচারে হত্যা করা প্রতিটি মানুষের নাম ঠিকানা সহ সম্পূর্ণ পরিচয় জনসম্মুখে প্রকাশ করার দাবিসহ যথাযথ আইনি প্রক্রিয়া অনুসরণ ছাড়া যে কোনো মানুষকে গ্রেফতার, আটক ও হয়রানি বন্ধ করা এবং এ ধরনের কাজের হুকুমদাতা কর্মকর্তা ও জড়িত সদস্যদের সংবিধান লঙ্ঘন ও আইনের শাসনবিরোধী অপরাধ সংগঠনের দায়ে বিচারের অধীনে আনার এবং নাগরিকদের সকল গণতান্ত্রিক অধিকার নিশ্চিত করে তাদের জীবনের নিরাপত্তা বিধান ও মৌলিক অধিকার সুরক্ষার ব্যবস্থা করার জন্য জোর দাবি জানানো হয়েছে।

বিবৃতিতে স্বাক্ষরকারীদের মধ্যে জাতীয় মুক্তি কাউন্সিলের সভাপতি বদরুদ্দীন উমর, জাতীয় গণফ্রন্টের প্রধান সমন্বয়ক টিপু বিশ্বাস, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল এর সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান, ইউপিডিএফ-এর সভাপতি প্রসিত বিকাশ খীসা, অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, অধ্যাপক আবুল কাসেম ফজলুল হক,  অধ্যাপক আকমল হোসেন, জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ, লেখক ওমর তারেক চৌধুরী, জ্যোতির্ময় বড়ুয়াসহ বিশিষ্টজনেরা রয়েছেন।
——————
সিএইচটিনিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.