‘নিজ ভূমে পরবাসী’ নামে রিপোর্ট প্রকাশ করেছে দীঘিনালা ভূমি রক্ষা কমিটি

0
6

সিএইচটিনিউজ.কম
Dighinala reportদীঘিনালা প্রতিনিধি : খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় বিজিবি ৫১ব্যাটালিয়ন কর্তৃক উচ্ছেদ হওয়া ২১ পরিবারের সংগ্রাম হিসেবে ‘নিজ ভূমে পরবাসী’ নামে বই আকারে একটি রিপোর্ট প্রকাশ করেছে দীঘিনালা ভূমি রক্ষা কমিটি। শনিবার (৪ এপ্রিল) উপজেলার একটি ক্লাবে অনুষ্ঠিত এক সভায় ভূমি রক্ষা কমিটির সদস্য সচিব ধর্মজ্যোতি চাকমা এ রিপোর্টের মোড়ক উন্মোচন করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন বাবুছড়া ইউপি চেয়ারম্যান সুগত প্রিয় চাকমা, দীঘিনালা ইউপি চেয়ারম্যান চন্দ্র রঞ্জন চাকমা ও ভুমি রক্ষা কমিটির সদস্য প্রজ্ঞান জ্যোতি চাকমা প্রমুখ। এছাড়া অনুষ্ঠানে স্থানীয় সাংবাদিকরাও উপস্থিত ছিলেন।

ছাব্বিশ পৃষ্ঠার রঙিন বইয়ে ২০১৪ সালের ১৪ মে উচ্ছেদ হওয়া শশী মোহন কার্বারী পাড়া ও যত্ন কুমার কার্বারী পাড়ার ২১ পরিবারের মানবেতর জীবন যাপনের বাস্তব চিত্র তুলে ধরা হয়েছে। এছাড়া বিজিবি ভূমি অধিগ্রহন, জেলা প্রশাসন ও বিজিবি’র আদালত অবমাননা, স্কুল ও মন্দিরের জমি বেদখল, জমি অধিগ্রহণের ক্ষেত্রে আইন ও জনমত লঙ্ঘন, উচ্ছেদ, এলাকাবাসীর বিরুদ্ধে হয়রানিমূলক মামলা-গ্রেফতার-নির্যাতন, বিজিবি ব্যাটালিয়ন স্থাপনে ভূমি রক্ষা কমিটির বিরোধীতার কারণ, প্রতিরোধ, বিজিবি’র অপপ্রচারের জবাব এবং উচ্ছেদ হওয়া ২১ পরিবারের বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে তুলে ধরা হয়েছে।

রিপোর্টে দীঘিনালাবাসীর পক্ষে সরকারের নিকট ৫দফা দাবী তুলে ধরা হয়েছে। দাবিগুলোর মধ্যে রয়েছে- ১. বিজিবি’র ৫১ ব্যাটালিয়ন সদর দপ্তর যত্ন কুমার কার্বারী পাড়া ও শশী মোহন কার্বারী পাড়ার পরিবর্তে এমন স্থানে নির্মাণ করতে হবে যেখানে কাউকে উচ্ছেদের শিকার হতে হবে না। ২. যত্ন কুমার কার্বারী পাড়া ও শশী মোহন কার্বারী পাড়া থেকে বিজিবি ৫১ ব্যাটালিয়ন কর্তৃক  উচ্ছেদ হওয়া ২১ পরিবারকে নিজ নিজ জমিতে ক্ষতিপূরণসহ পুনর্বাসন করতে হবে। ৩. ১১ জুন ২০১৪ ও ১৫ মার্চ ২০১৫ উচ্ছেদ হওয়া ২১ পরিবারের সদস্য, দীঘিনালা ভূমি রক্ষা কমিটির সদস্য এবং এলাকার নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি ও হেডম্যানসহ দীঘিনালাবাসীর বিরুদ্ধে দেয়া মিথ্যা মামলা তুলে নিতে হবে। ৪. ১৫ মার্চ ২০১৫ দেয়া মিথ্যা মামলায় আটককৃতদের অবিলম্বে নিঃশর্ত মুক্তি দিতে হবে। ৫. গ্রামে গ্রামে বাড়িঘরে তল্লাশীর নামে হয়রানি ও ভয়ভীতি প্রদর্শন বন্ধ করতে হবে।

রিপোর্টে বিজিবি ৫১ ব্যাটালিয়ন সদর দপ্তর স্থাপনের নামে বেআইনীভাবে জমি অধিগ্রহণের কারণে উচ্ছেদ হওয়া ২১ পরিবারের ন্যায় বিচার প্রাপ্তিতে সহযোগিতা ও উপরোক্ত দাবির প্রতি সমর্থনে এগিয়ে আসার জন্য দেশের সকল বিবেকবান, গণতান্ত্রিক ও প্রগতিশীল দল, সংগঠন ও ব্যক্তির কাছে আহ্বান জানানো হয়েছে।
——————–

সিএইচটিনিউজ.কম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.