বিজিবি ও সেটলার কর্তৃক স্কুলঘর ভাঙচুর : জেলা প্রশাসক বরাবর রামগড়বাসীর স্মারকলিপি পেশ

0
3
রামগড় : খাগড়াছড়ি জেলার রামগড় উপজেলাধীন ১নং ইউনিয়নে নবনির্মিত দক্ষিণ লালছড়ি বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি (স্কুলঘর) ভেঙে দেয়ার সাথে জড়িতদের শাস্তি এবং ক্ষতিপূরণ প্রদানের দাবিতে স্মারকলিপি পেশ করেছে রামগড় এলাকাবাসী।
 
গত মঙ্গলবার(০৮ জানুয়ারী) ০৩ টায় খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে এলাবাসীর পক্ষ থেকে একটি প্রতিনিধিদল স্কুল পরিচালনা কমিটি, শিক্ষক, হেডম্যান, জনপ্রতিনিধি, কার্বারীসহ ১০১ জন স্মাক্ষরিত স্মারকলিপিটি জেলা প্রশাসক মোঃ শহীদুল ইসলামের নিকট পেশ করেন।
প্রতিনিধি দলটিতে ছিলেন, স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতি হরি মোহন চাকমা, সদস্য সচিব জামেন্ট ত্রিপুরা, উপদেষ্টা সরেন্দ্র ত্রিপুরা, স্কুলে প্রধান শিক্ষক মিলন কান্তি ত্রিপুরা, সহকারী শিক্ষক অায়ন চাকমা, ২নং পাতাছড়া ইউনিয়নের সদস্য কর্ণ মোহন ত্রিপুরা, যোগ্যছলা ইউনিয়নের সদস্য সুমন কান্তি চাকমা প্রমুখ।
 
উক্ত স্মারকলিপি গ্রহন করে জেলা প্রশাসক মোঃ শহীদুল ইসলাম প্রতিনিধিদলকে বলেন, ‘আপনারা স্কুলের বিষয়ে উপজেলা শিক্ষা অফিসারের কাছে যান। এতে আমার কিছু করার নেই।’
তবে তিনি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন বলেও আশ্বাস দেন।
 

উল্লেখ্য, রামগড় উপজেলার ১নং ইউনিয়নের অধীন রূপাইছড়ি, দক্ষিণ লালছড়ি, গরুকাটা, লাঙেল পাড়ার এলাবাসীর অর্থায়নে ও সেচ্ছাশ্রমে স্কুলটি নির্মানের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়। বহু কষ্টে স্কুল ঘরটি নির্মান সম্পন্ন করা হয়। কিন্তু কোন কারণ ছাড়া গত ২৪ ডিসেম্বর রাতে কতিপয় বিজিবি সদস্য ও সেটেলার খাগড়াবিল থেকে এসে স্কুলটি ভেঙে দেয় ত্রবং টিনগুলো খুলে নিয়ে যায়। এরপর ৬ সেপ্টেম্বর দরজা-জানালা ভেঙে নির্মাণ সামগ্রী নষ্ট করে দেয়। এবং পরে ১০ নভেম্বর সাইনর্বোড খুলে নিয়ে যায়। এতে তিন লক্ষাধিক টাকা ক্ষয়ক্ষতি হয়। স্কুলের নতুন কাঠামো গড়ে ওঠার পর এ বছর (২০১৯) পূর্ণো্যমে ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি করার কথা ছিল।

——————
সিএইচটি নিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.